১৪ই ফেব্রুয়ারি কি দিবস ২০২৪

ইংরেজি ১২ মাসের মধ্যে সবথেকে ছোট মাস ফেব্রুয়ারি। ২৮ দিনে ফেব্রুয়ারির এক মাস হয়ে থাকে। এছাড়াও দীর্ঘ চার বছর পর পর ২৯ দিনে এক মাস বা অধিবর্ষ হয়। বছরের ছোট মাস হলেও সব থেকে বেশি দিবস ফেব্রুয়ারিতে পালন করা হয়।

ফেব্রুয়ারি মাসে ছোট বড় দিবস ও ডে মিলিয়ে আনুমানিক ২০ থেকে ২২ টি দিবস পালন করা হয়ে থাকে। এত সব দিবসের মধ্যে অনেকেই জানতে চান ১৪ই ফেব্রুয়ারি কি দিবস। নিচে এই দিবস সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

১৪ই ফেব্রুয়ারি কি দিবস

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস পালন করা হয় ১৪ই ফেব্রুয়ারি। প্রেম বা কল্পনা প্রবণ ভালবাসা বলতে বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আকর্ষণকে বোঝায়। মানবজাতি সৃষ্টির পর থেকেই প্রেম ভালবাসা বিরাজমান রয়েছে। অনেক মনীষী প্রেম ভালবাসাকে স্বর্গীয় অনুভূতি বলে গেছেন। এই অনুভূতির দিবস পালন করা হয় ১৪ই ফেব্রুয়ারিতে।

১৪ ফেব্রুয়ারির আগে কি কি ডে পালিত হয়?

ফেব্রুয়ারি মাসের ৭ থেকে ১৩ তারিখ পর্যন্ত বিভিন্ন ডে বাংলাদেশের যুবক শ্রেণির মানুষ পালন করে থাকে। যা একসময় বাংলাদেশে পালন করা না হলেও কালের পরিবর্তনে তা আস্তে আস্তে বাংলাদেশেও ব্যাপক হারে পালন করা হচ্ছে। নিচে এই সকল দিবস সমূহ দেওয়া হলো।

  • ৭ ই ফেব্রুয়ারি রোজ ডে এবং ৮ই ফেব্রুয়ারি প্রপোজ ডে
  • ৯ই ফেব্রুয়ারি চকলেট ডে এবং ১০ই ফেব্রুয়ারি টেডি ডে
  • ১১ ই ফেব্রুয়ারি প্রমিস ডে এবং ১২ ই ফেব্রুয়ারি হাগ ডে ও
  • ১৩ই ফেব্রুয়ারি কিস ডে হিসাবে পালন করা হয়ে থাকে

২০২৪ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি কি জাতীয় দিবস?

বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত দিবস সমূহকে মূলত জাতীয় দিবস বলা হয়। বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত অনেক দিবস রয়েছে যা প্রতিবছর পালন করা হয়। তবে ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস হলেও তা বাংলাদেশ সরকার জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণা করেনি।

১৪ই ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের প্রকৃত অর্থ কি?

বহু বছর আগে ২৬৯ সালে একজন বা দুজন খ্রিস্টান ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তাদের এই মৃত্যুবার্ষিকী বিভিন্ন খ্রিস্টান রাষ্ট্রে ১৪ই ফেব্রুয়ারিতে পালন করা হতো। যা বর্তমান সময়ে বিভিন্ন পরিবর্তনের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

ভ্যালেন্টাইন ডে এর ইতিহাস?

ইতালির রোম নগরীতে সেন্ট ভ্যালেন্টাইন নামে একজন খ্রিস্টান পাদ্রী ও চিকিৎসক ছিলেন। রোম সাম্রাজ্যে খ্রিস্টান ধর্ম প্রচার নিষিদ্ধ থাকা সত্ত্বেও তিনি খ্রিস্টান ধর্ম প্রচার করেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে রোমের সম্রাট দ্বিতীয় ক্রাডিয়াস তাকে বন্দী করেন। বন্দি থাকাকালীন তিনি একটি অন্ধ মেয়েকে চিকিৎসা করে সুস্থ করার মাধ্যমে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

তার এই জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে রাজা তাকে মৃত্যুদণ্ড দেন। অতঃপর ৪৯৬ সালে পোপ সেন্ট জেলাসিউও ভ্যালেন্টাইন এর স্মরণে ১৪ই ফেব্রুয়ারিকে ভ্যালেন্টাইন দিবস ঘোষণা করেন। এবং প্রতিবছর ১৪ ফেব্রুয়ারিতে তার মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হতো। যা বর্তমান তরুণ সমাজ ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।

১৪ ই ফেব্রুয়ারি সম্পর্কে ইসলাম কি বলে?

ইসলামে অশ্লীলতা সম্পূর্ণরূপে হারাম। বর্তমানে তরুণ সমাজ ভালোবাসা দিবসের নামে বিভিন্ন রকম অশ্লীলতা করে বেড়ায়। যা ইসলাম আগে কখনো সমর্থন করেনি এখনো করে না। এসব ভালোবাসা দিবস পশ্চিমা সভ্যতার অংশ যা মুসলমানদের ঈমান ধ্বংস করার জন্য যথেষ্ট। তাই আমাদের এই সকল ভালোবাসা দিবস নামক অশ্লীলতা থেকে বিরত থাকতে হবে।

শেষ কথা

ফেব্রুয়ারি মাস কে বলা হয় দিবস পালনের মাস কেননা এই মাসে সবথেকে বেশি দিবস রয়েছে। তবে যারা ফেব্রুয়ারি মাসের সকল দিবস সম্পর্কে জানলেও ১৪ই তারিখ কি দিবস তা জানতেন না। আশা করি এই পোস্টটি পড়ার মাধ্যমে ১৪ই ফেব্রুয়ারি কি দিবস সে সম্পর্কেই বিস্তারিত জানতে পেয়েছেন।