কাজী নজরুল ইসলাম বিখ্যাত কবিতা ২০২৪

কাজী নজরুল ইসলাম, বাংলা সাহিত্যের একজন বিখ্যাত কবি, যিনি “বিদ্রোহী কবি” হিসেবে পরিচিত। তার কবিতাগুলি বিদ্রোহ, স্বাধীনতা, প্রেম, দেশপ্রেম, এবং মানবতার বার্তায় ভরা। যার কারনে কাজী নজরুল ইসলামের এই কবিতাগুলো অনেকেই ভালোবাসেন। ছোট বড় প্রায় সকল ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতায় বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা গুলো আবৃত্তি করা হয়।

কিন্তু আবৃত্তি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে হলে অবশ্যই সুন্দর একটি কবিতা নির্বাচন করা উচিত। এ কারণে অনেকেই বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম এর বিখ্যাত কবিতা কোনটি তা জানতে চায়। একেকজনের কাছে একেক দিক থেকে জনপ্রিয়তার উপর ভিত্তি করে যে কোন কবিতা বিখ্যাত হতে পারে। তবুও আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আমি আপনাদের সাথে কাজী নজরুল ইসলাম বিখ্যাত কবিতা নিয়ে বেশ কিছু তথ্য প্রদানের চেষ্টা করব।

কাজী নজরুল ইসলাম বিখ্যাত কবিতা

বিদ্রোহী কবি কর্তৃক লিখিত চল চল চল কবিতাটি বেশ জনপ্রিয়। মূলত এই কবিতাটিতে তরুণ প্রজন্মকে সকল বাধা বিপত্তি অতিক্রম করে সামনে এগিয়ে যেতে আহ্বান জানানো হয়েছে। অনেকেই কাজী নজরুল ইসলাম বিখ্যাত কবিতা খুঁজে থাকেন। তাদের জন্য এই কবিতাটি উপযুক্ত। অনেক কবিতা আবৃত্তির প্রতিযোগিতায় চল চল চলএই কবিতাটি আবৃতি করা হয়ে থাকে।

চল চল চল!
ঊর্ধ্ব গগনে বাজে মাদল
নিম্নে উতলা ধরণি তল,
অরুণ প্রাতের তরুণ দল
চল রে চল রে চল
চল চল চল।।

ঊষার দুয়ারে হানি’ আঘাত
আমরা আনিব রাঙা প্রভাত,
আমরা টুটাব তিমির রাত,
বাধার বিন্ধ্যাচল।

নব নবীনের গাহিয়া গান
সজীব করিব মহাশ্মশান,
আমরা দানিব নতুন প্রাণ
বাহুতে নবীন বল!
চল রে নও-জোয়ান,
শোন রে পাতিয়া কা-
মৃত্যু-তরণ-দুয়ারে দুয়ারে
জীবনের আহবান।
ভাঙ রে ভাঙ আগল,
চল রে চল রে চল
চল চল চল।।

ঊর্ধ্ব আদেশ হানিছে বাজ,
শহীদী-ঈদের সেনারা সাজ,
দিকে দিকে চলে কুচ-কাওয়াজ-
খোল রে নিদ-মহল!

কবে সে খেয়ালী বাদশাহী,
সেই সে অতীতে আজো চাহি’
যাস মুসাফির গান গাহি’
ফেলিস অশ্রুজল।

যাক রে তখত-তাউস
জাগ রে জাগ বেহুঁস।
ডুবিল রে দেখ কত পারস্য
কত রোম গ্রীক রুশ,
জাগিল তা’রা সকল,
জেগে ওঠ হীনবল!
আমরা গড়িব নতুন করিয়া
ধুলায় তাজমহল!
চল চল চল।।

নজরুলের বিখ্যাত কবিতা

বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম অনেক ধরনের কবিতা লিখেছেন। এর মধ্যে বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য বিখ্যাত কবিতা রয়েছে। নজরুল ভক্তগণ গুগলে এ সকল বিখ্যাত কবিতাগুলো খুঁজে বেড়ায়। তাদের জন্য নিচের অংশে বিখ্যাত একটি কবিতা শেয়ার করা হলো।

আমার দেশের মাটি
ও ভাই, খাঁটি সোনার চেয়ে খাঁটি॥
এই দেশের মাটি-জলে
এই দেশেরই ফুলে ফলে
তৃষ্ণা মিটাই, মিটাই ক্ষুধা
পিয়ে এরই দুধের বাটি॥
এই মায়েরই প্রসাদ পেতে,
মন্দিরে এর এঁটো খেতে
তীর্থ করে ধন্য হতে আসে কত জাতি॥
এই দেশেরই ধুলায় পড়ি
মানিক যায় রে গড়াগড়ি,
বিশ্বে সবার ঘুম ভাঙাল
এই দেশেরই জিয়ন-কাঠি॥
এই মাটি এই কাদা মেখে,
এই দেশেরই আচার দেখে,
সভ্য হল নিখিল ভুবন দিব্য পরিপাটি॥
এই সন্ন্যাসিনী সকল দেশে,
জ্বালল আলো ভালোবেসে
মা আঁধার রাতে একলা জাগে
আগলে রে এই শ্মশান-ঘাঁটি॥

কাজী নজরুল ইসলাম বিখ্যাত প্রেমের কবিতা

বিদ্রোহী কবি যেমন বিদ্রোহী কবিতা লিখেছেন ঠিক তেমনি প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য প্রেমের কবিতাও লিখেছেন। যারা প্রেম করেন তাদের মধ্যে অনেকেই কাজী নজরুল ইসলাম এর বিখ্যাত প্রেমের কবিতা খুঁজে থাকে। তাদের জন্য নিচের অংশে একটি কবিতা শেয়ার করা হলো।

আমার দূরের বন্ধু

কোন নিঃসঙ্গ আবাসে তুমি আমাকে বার বার ইশারা করছ বন্ধু!
আমার রাস্তার পাশের বাড়ি, দুঃখে ভরা,
প্রতিনিয়ত ঝড়ে উড়ে যায়,
গৃহহীন, আমি ঘুরে বেড়াই।
তোমার বাঁশির তুমুল সুর
সব বন্ধন আলগা করে দেয়।
এভাবেই আমি পথযাত্রী রাস্তার ধারের বধূর খোঁজে
ঘুরে বেড়াচ্ছি ।

কাজী নজরুলের ছোট কবিতা

বিদ্রোহী কবি কর্তৃক অনেক সুন্দর সুন্দর ছোট কবিতা লেখা হয়েছে। কিশোর কিশোরীরা এ সকল কবিতাগুলো অনেক পছন্দ করে থাকে। অনেক সুন্দর একটি কাজী নজরুলের ছোট কবিতা নিচের অংশে শেয়ার করা হলো।

আমি হব সকাল বেলার পাখি
– কাজী নজরুল ইসলাম

“আমি হব সকাল বেলার পাখি
সবার আগে কুসুম বাগে
উঠব আমি ডাকি।

“সুয্যি মামা জাগার আগে
উঠব আমি জেগে,
‘হয়নি সকাল, ঘুমোও এখন’,
মা বলবেন রেগে।

বলব আমি- ‘আলসে মেয়ে
ঘুমিয়ে তুমি থাক,
হয়নি সকাল, তাই বলে কি
সকাল হবে নাক’?

আমরা যদি না জাগি মা
কেমনে সকাল হবে ?
তোমার ছেলে উঠবে মা গো
রাত পোহাবে তবে।

শেষ কথা

কবিতা জগতের অন্যতম জনপ্রিয় কবি হচ্ছে বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম। আপনি চাইলে যে কোন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের কবিতা আবৃত্তির প্রতিযোগিতায় নজরুলের কবিতা গুলো আবৃত্তি করতে পারেন। আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আমি আপনাদের সাথে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বাছাই করে কাজী নজরুল ইসলাম বিখ্যাত কবিতা গুলো শেয়ার করার চেষ্টা করেছিলাম। আশা করি ইতিমধ্যে আপনি বিখ্যাত কবিতাগুলো সংগ্রহ করতে পেরেছেন।