পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক ২০২৪

পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক করা পাসপোর্ট আবেদনকারীর একান্ত প্রয়োজন। আমরা যারা পাসপোর্ট করার জন্য যাবতীয় ডকুমেন্ট জমা দিয়েছি। তাদের অবশ্যই পাসপোর্ট টিকে পুলিশ ভেরিফিকেশন করতে হবে। পুলিশ সকল কাগজ প্ত্র দেখে যদি অনুমোদন দেয় তাহলে আপনার পাসপোর্ট টি হাতে পাবেন।

আর যদি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স না দেয় তাহলে পাসপোর্ট আপনার হাতে পাবেন না। তাই সকল পাসপোর্ট ধারীদের পুলিশ ভেরিফিকেশনের কথা মাথায় রাখতে হবে। আপনার পাসপোর্টের  আবেদনের সকল প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর। পাসপোর্ট টি যাচাইয়ের জন্য নিকটতম থানায় তথ্য গুলো যাচাই বাচাই করার জন্য পেরন করা হয়ে থাকে।

এ সময় পুলিশ আপনার সমস্ত ডকুমেন্ট গুলো যাচাই করে এবং তারা দেখে পাসপোর্ট কারী কোন অনৈতিক কাজে লিপ্ত আছে কিনা। যদি সব ঠিক ঠাক থাকে তবে পাসপোর্ট টি Approved করে দেওয়া হয় আর যদি কোন ঝামেলা থাকে তাহলে পাসপোর্ট Un-approve করে দেওয়া হয়।

আজকে আর্টকেলের মাধ্যমে আপনাকে জানাব, পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক কিভাবে করতে হয়। পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য কি কি কাগজ পত্র সংগে নিতে হয়। পুলিশ ভেরিফিকেশন করতে কত দিন লাগে সহ পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন সংক্রান্ত সকল বিষয় আলোচনা করব। 

পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক ২০২৪

আমরা কম বেশী সকলেই পুলিশ ভেরিফিকেশনের সাথে পরিচিত। ভেরিফিকেশন মানে যাচাই বাচাই করা অর্থাৎ কোন ডুকুমেন্টস কে সঠিকভাবে মুল্যায়ন করাই হচ্ছে ভেরিফিকেশন। এই পর্বে পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন নিয়ে আলোচনা করা হবে।

আপনই যদি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করে থাকেন তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য হেল্পফুল হবে। পাসপোর্ট আবেদনের পর তা পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য নিজ নিজ থানার প্রেরন করা হয়ে থাকে।

এ সময় থানা থেকে পুলিশ কল করে বা অনেক সময় বাড়িতে আসে তদন্ত করতে পারে। আপনাকে এই বিষয়ে পূর্ব থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। পুলিশ এসে আপনার কাছে আপনার কাছে কিছু ডুকুমেন্ট চাইবে। সেই ডুকুমেন্টস গুলো কি কি তা নিচে দেওয়া হল।

পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

আপনি কি জানেন পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন কি কি লাগে? পুলিশ ভেরি ফিকেশনের জন্য যে সব কাগজ প্ত্র লাগবে তা অবশ্যই সাথে রাখতে হবে। আপনি পাসপোর্ট আবেদন করার সময় যে সব তথ্য দিয়ে ছিলেন ঠিক সব তথ্য গুলো পুলিশ কে পেশ করবেন।

  • নিজের ভোটার আইডি কার্ড/ জন্মনিবন্ধন/
  • পিতা মাতা এন আই ডি কার্ড যদি না থাকে মৃত্য সনদ
  • ভাই বা ভোনের আই ডি কার্ড
  • চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট
  • বিদ্যুৎ বিলের রশিদ

উপরোক্ত তথ্য গুলোর যাচাই শেষে আপনাকে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স দেওয়া হবে। অর্থ্যাত পাসপোর্টের জন্য তথ্য সঠিক এর একটি নমুনা পাসপোর্ট অফিসে প্রেরন করা হবে। ৫ থেকে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে আপনার পাসপোর্ট নিকটতম পাসপোর্ট অফিস থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।

থানা থেকে পুলিশ কল না করলে করনীয়

যদি কোন কারনে পাসপোর্টের কোন তথ্য না পান তবে চিন্তা করবেন না। অর্থ্যাত নিয়ম অনুযায়ী পাসপোর্টের জন্য আবেদনের ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য আপনার খোজ করে থাকে।

কিন্তু যদি এমন হয় যে এই সময়ের মধ্যে পুলিশ কল করেন নাই বা পাসপোর্ট সংক্রান্ত কোন তথ্য পান নাই। তাহলে অনলাইনে পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন চেক করতে পারবেন। 

_পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক
_পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক

কিভাবে চেক করবেন তা নিচে ধাপে ধাপে আলোচনা করা হল

ধাপ নং ১

অনলাইনে পাসপোর্ট চেক করার জন্য যে কোন ব্রাউজার থেকে ভিজিট করুন https://www.immi.gov.bd/Passport-Verify এই ঠিকানায়।

ধাপ নং ২

ওই সাইটে প্রবেশ করার পর হোম পেইজে দেখতে পাবেন। সেখানে দুটি তথ্য দেওয়ার বক্স আছে। যার একটি হচ্ছে পাসপোর্টের স্লিপ নং অপরটি জন্ম তারিখ।

ধাপ নং ৩

পাসপোর্ট স্লিপ থেকে স্লিপ নং এবং জন্ম তারিখ সন্দুর ভাবে পূরন করে দিন।

ধাপ নং ৪

এ দুটি তথ্য দেওয়ার পর নিচে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। একটু পরেই দেখতে পাবেন আপনার পাসপোর্টের সকল তথ্য।

পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক
পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক

আপনার পাসপোর্ট কোথায় রয়েছে কোন অফিসারের কাছে আছে। কবে আপনি হাতে পাবেন। এস আইয়ের মোবাইল নাম্বার সহ যাবতীয় তথ্য।

আশা করি এই কাজটি আপনারা সহজেই করতে পেরেছেন।

পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন কত দিন লাগে

আপনি যদি বাংলাদেশ হতে বিশ্বের অন্য কোন দেশে ঘুরতে অথবা কাজের দেশে যেতে চান তাহলে শুরুতেই আপনাকে বাংলাদেশ সরকার করতে অনুমোদিত পাসপোর্ট তৈরি করতে হবে। এই পাসপোর্ট তৈরি করতে আপনাকে বেশ কয়েকটি ধাপ অতিক্রম করতে হবে। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন। এটি একটি বাধ্যতামূলক ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া। সাধারণত পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন করতে তিন থেকে পাঁচ কার্য দিবস সময় লেগে থাকে।

শেষ কথা

আশাকরি আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েছেন এবং জানরে পেরেছেন কিভাবে পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন চেক করতে হয়। পুলিশ ভেরিফিকেশন করতে পূর্ব পস্তুতি হিসাবে কি কি রাখা দরকার হয়। পুলিশ কে কি কি ডুকুমেন্ট দিতে হবে ইত্যাদি সকল তথ্য এই পোস্টে আলোচনা করেছি।

আপনার কোন তথ্য মিসিং থাকলে সরাসরি কমেন্ট বক্সে লিখে ফেলুন। আমরা আপনার প্রশ্নের সঠিক তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করব। আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Comments are closed.