রহিম আফরোজ আইপিএস ব্যাটারির দাম কত

বর্তমানে বাংলাদেশে প্রচুর পরিমাণে বিদ্যুতের ঘাটতি থাকায় লোডশেডিং এর উপদ্রব বহুগুনে বেড়ে গিয়েছে। প্রয়োজনের তুলনায় বিদ্যুৎ উৎপাদন না করতে পারায় সকল এলাকায় সমানভাবে বিদ্যুৎ সাপ্লাই দিতে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। লোডশেডিং এর এই উপদ্রব থেকে মুক্তি পেতে বাংলাদেশের অনেকেই বিভিন্ন কোম্পানির আইপিএস ব্যবহার করে থাকেন।

তবে এই সকল কোম্পানির আইপিএস এর থেকে রহিম আফরোজ কোম্পানির আইপিএস অনেক টেকসই হয়ে থাকে। কেননা রহিম আফরোজ কোম্পানির আইপিএসে খুবই উন্নত মানের ভালো ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়। লোডশেডিং থেকে বাঁচতে আইপিএস কেনার জন্য অনেকেই রহিম আফরোজ আইপিএস ব্যাটারির দাম সম্পর্কে জানতে চায় যা নিচে বিস্তারিত জানানো হয়েছে।

রহিম আফরোজ আইপিএস ব্যাটারির দাম

বর্তমান সময়ে আমরা যে সকল ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করি তা বিদ্যুতের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে থাকে। তাই যখন লোডশেডিং থাকে তখন আমরা এই সকল ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হই। তবে আমরা চাইলে আইপিএস ব্যবহার করার মাধ্যমে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারি।

আইপিএসে থাকা ব্যাটারি বিদ্যুৎ সরবরাহ করায় বিদ্যুৎ না থাকলেও আমরা বৈদ্যুতিক যন্ত্র ব্যবহার করতে পারি। তবে বেশি সুবিধা পেতে আমাদেরকে অবশ্যই একটি ভালো মানের ব্যাটারিযুক্ত আইপিএস কিনতে হবে। বর্তমানে রহিম আফরোজ আইপিএস ব্যাটারির দাম সর্বনিম্ন ১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৪০ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

২০০ এম্পিয়ার ব্যাটারির দাম কত?

ব্যাটারি বা তড়িৎ কোষ একাধিক তড়িৎ রাসায়নিক কোষ দ্বারা গঠিত একটি বিশেষ যন্ত্র। যে যন্ত্রের মধ্যে আমরা বিদ্যুৎ সংরক্ষণ করতে পারি এবং প্রয়োজনের সময় তা খরচ করতে পারি। তবে এই বিদ্যুৎ আমরা কতটুকু সংরক্ষণ করতে পারি তা ব্যাটারি কত এম্পিয়ারের তার উপর নির্ভর করে।

একটি ২০০ এম্পিয়ারের ব্যাটারীতে আমরা অনেক বেশি পরিমাণে বিদ্যুৎ সংগ্রহ করতে পারি। যার কারণে ২০০ এম্পিয়ারের একটি ব্যাটারির দাম বর্তমান বাজার মূল্য অনেক বেশি। ব্যাটারির টাইপের উপর ভিত্তি করে বর্তমানে ২০০ এম্পিয়ারের একটি ব্যাটারি কিনতে আপনাকে ২৫ থেকে ৩৫ হাজার টাকা খরচ করতে হতে পারে।

১০০ এম্পিয়ার ব্যাটারির দাম কত?

আমরা যারা অল্পসংখ্যক বৈদ্যুতিক যন্ত্র ব্যবহার করে থাকি তাদের জন্য ১০০ এম্পিয়ারের একটি ব্যাটারিই যথেষ্ট। এছাড়াও ১০০ এম্পিয়ারের ব্যাটারির বাজার মূল্য আমাদের হাতের নাগালে রয়েছে। বর্তমানে ব্যাটারি টাইপ বিবেচনা করে ১০০ এম্পিয়ারের এক একটি ব্যাটারি ১২ হাজার টাকা থেকে ১৬ হাজার টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

৫০ অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারির দাম কত?

অনেকেই আমরা আইপিএসের মাধ্যমে শুধু মাত্র একটি বা দুইটি বৈদ্যুতিক যন্ত্র সচল রাখতে চাই। তারা চাইলে খুবই অল্প টাকার মধ্যে ৫০ এম্পিয়ার ব্যাটারির একটি আইপিএস কিনতে পারেন। ৫০ এম্পিয়ারের ব্যাটারী ক্যাপাসিটি কম হওয়ায় এর দামও তুলনামূলক কম। বর্তমানে ৫০ এম্পিয়ারের একটি ব্যাটারি ৭ থেকে ৯০০০ টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন।

রহিম আফরোজ আইপিএস এর দাম ২০২৪

আইপিএসের দাম এর কোয়ালিটি এবং ব্যাটারি কতটা উন্নত তার উপর নির্ভর করে। আপনি ৩০-৪০ হাজার টাকা খরচ করলে একটা মোটামুটি লেভেলের রহিম আফরোজ কোম্পানির আইপিএস পেয়ে যাবেন। তবে ভালো মানের রহিম আফরোজ কোম্পানির একটি আইপিএস কিনতে হলে আপনাকে সর্বনিম্ন ৫০-৬০ হাজার টাকা খরচ করতে হবে।

রহিম আফরোজ আইপিএসের মডেল ও দাম

একটি আইপিএস কতটুকু সময় বিদ্যুৎ সাপ্লাই দিতে পারবে তা সম্পূর্ণ তার ব্যাটারি ক্যাপাসিটির উপর নির্ভর করে। তাই আইপিএস এর দামও তার ব্যাটারি কত ভালো তার উপর নির্ভর করে। তবে ব্যাটারির সাথে সাথে বাংলাদেশের রহিম আফরোজ কোম্পানির আইপিএসের মডেল অনুযায়ী এর দাম নির্ধারিত হয়ে থাকে।

  • মডেলঃ RZ 1125 – মূল্যঃ 58,100 টাকা
  • মডেলঃ RZ 950 – মূল্যঃ 51,500 টাকা
  • মডেলঃ Rahimafrooz 550VA – মূল্যঃ 38,200 টাকা
  • মডেলঃ Rahimafrooz 350VA – মূল্যঃ ২৬,৫০০ টাকা
  • মডেলঃ Rahimafrooz 1275 – মূল্যঃ ২১,০০০ টাকা

শেষ কথা

বাজারে ভালো ব্যবসায়ীর পাশাপাশি অনেক অসাধু ব্যবসায়ী রয়েছে। যারা কম দামের আইপিএস দিয়ে বেশি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এই সকল অসাধু ব্যবসায়ীর ক্ষতির হাত থেকে আপনাদের সতর্ক করার জন্য এই পোস্টে আমরা রহিম আফরোজ আইপিএস ব্যাটারির দাম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

Md Tuhin
Md Tuhin