10 বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে ২০২৪

10 বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে আপনার জানা না থাকার কারনে আপনাকে এই পোস্ট পড়তে হচ্ছে। আমি দেখেছি অনেকেই পাসপোর্ট করতে চায় কিন্তু তারা জানে না একটি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে। বাংলাদেশে ১০ বছর বা ৫ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট ফি লিগ্যাল কত? এই প্রশ্ন অনেকের মনে গুরপাক খায়। মুলত তাদের কথা চিন্তা করে আজকের পাসপোর্ট ফি নিয়ে আর্টিকেল টি সাজাতে যাচ্ছি। আশা করি নিবন্ধ টি আপনাদের হেল্প করবে। একটি ই পাসপোর্ট করতে ৪০২৫ থেকে ১৩৮০০ টাকা পর্যন্ত খরচ হয়।

পাসপোর্টের পৃষ্ঠায় উপর নির্ভর করে ই-পাসপোর্টের ফি। বাংলাদেশে মুলত ৫ বছর মেয়াদে এবং ১০ বছর মেয়াদে পাসপোর্টে করা হয়। আপনি যদি পাচ বছর বা দশ বছর মেয়াদী করেন তাহলে আপনার পাসপোর্টটি ৫ বা ১০ বছর পরই মেয়াদ শেষ হবে। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই  রিনিউ করে নিলে আবার মেয়াদ বৃদ্ধি পাবে। 

তাই পাসপোর্ট করার পূর্বে এই বিষয়ে ধারনা থাকা উচিত।  আমরা এই পর্বে পাসপোর্ট ফি সংক্রান্ত সকল তথ্য শেয়ার করব। যেমন ই-পাসপোর্ট ফি জমা ব্যাংক এর নাম, ই- পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার নিয়ম সহ আরো অনেক অজানা তথ্য। তাই মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন।

10 বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে

আমরা সকলেই জানি যে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশে ই পাসপোর্ট সিস্টেম চালু হয়েছে। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসেই অনলাইনে আপনার আবেদন পত্র জমা দিতে পারেন। বর্তমানে দুই ধরনের পাসপোর্ট বাংলাদেশে চলমান আছে, একটি হচ্ছে ৪৮ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট এবং অপটি হচ্ছে ৬৪ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট। আপনি হয়তো জেনে থাকবেন যে পৃষ্ঠার উপর নির্ভর করে পাসপোর্ট এর ফি কম বা বেশি হয়ে থাকে।

এছাড়াও আপনি কোন উপায়ে আপনার পাসপোর্টটি ডেলিভারি পেতে চান তার উপরেও ফি কম বা বেশি হয়ে থাকে। বর্তমানে আপনি তিনটি উপায়ে আপনার পাসপোর্ট পেতে পারেন প্রথমটি হচ্ছে রেগুলার ডেলিভারি যার ফি সর্বনিম্ন পরিমাণ রাখা হয়েছে। এছাড়াও এক্সপ্রেস ও সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারি সুবিধা রয়েছে, যার মাধ্যমে আপনি অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার পাসপোর্ট হাতে পেয়ে যাবেন।

১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি ২০২৪

১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি ২০২৪ সালে নির্ধারন করা হয়েছে এই পোস্টে তা ক্লিয়ার করে দেওয়া হবে। আপনি পাসপোর্ট দুটি উপায়ে করতে পারবেন। যার একটি নিকটবর্তী পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে অন্য ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে।

হ্যা ঠিক শুনছেন আপনি চাইলে ঘরে বসে ই-পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন। যে কোন জায়গায় পাসপোর্ট করতে গেলে পাসপোর্টের নির্ধারিত ফি জমা দিতে হবে। আর সেই পাসপোর্ট ফি কত টাকা দিতে হবে, কিভাবে দিতে হবে সেই বিষয়ে সকল তথ্য শেয়ার করব। আশাকরি পাসপোর্ট ফি সংক্রান্ত আর কোন প্রশ্ন থাকবে না। তাহলে চলুন মুল আলোচনা শুরু করি।

পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে

একটি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে তা জানা প্রয়োজন। পাসপোর্টের ধরন অনুযায়ী পাসপোর্ট টাকার পরিমান নির্ধারন করা হয়। ৪৮ পৃষ্ঠায় ৫ বছর মেয়াদে রেগুলার ডেলিভারিতে ৪০২৫ টাকা এক্সপ্রস ডেলিভারীতে ৬৩২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারীতে ৮৬২৫ টাকা খরচ হবে।

মেয়াদ, পৃষ্ঠা সংখ্যা এবং ও ডেলিভারির ধরন অনুসারে পাসপোর্টের ফি একেক রকম হয়ে থাকে। সর্বনিম্ন পাসপোর্ট খরচ ৪০২৫ থেকে সর্বোচ্চ ১৩৮০০ টাকা পর্যন্ত খরচ হয়ে থাকে। নিচে একটি ছবিতে পাসপোর্টের সকল ফি বিস্তারিত উল্লেখ করা হল।

৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি কত

৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি কত। পাসপার্টের ধরন অনুসারে ফি নির্ধারন করা হয়ে থাকেন। ৪৮ পৃষ্ঠায় ৫ বছর মেয়াদে রেগুলার ডেলিভারিতে ৪০২৫ টাকা এক্সপ্রস ডেলিভারীতে ৬৩২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারীতে ৮৬২৫ টাকা খরচ হবে। আর ৬৪ পৃষ্ঠায় হলে রেগুলার ডেলিভারিতে ৬৩২৫ টাকা, এক্সপ্রস ডেলিভারীতে ৮৬২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারীতে ১২০৭৫ টাকা খরচ হবে।

৫ বছর মেয়াদী ৪৮ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট ফি

passport fee 5 years 48 page
passport fee 5 years 48 page

৪৮ পৃষ্ঠায় ৫ বছর মেয়াদী পাসপোর্টে রেগুলার ডেলিভারিতে ৪০২৫ টাকা এক্সপ্রস ডেলিভারীতে ৬৩২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারীতে ৮৬২৫ টাকা ফি দিতে হবে।

৫ বছর মেয়াদী ৬৪ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট ফি

passport fee 5 years 64 page
passport fee 5 years 64 page

৬৪ পৃষ্ঠায় পাসপোর্ট হলে তিন টি ক্যাটাগরিতে ফি প্রযোজ্য হবে। রেগুলার ডেলিভারিতে ৬৩২৫ টাকা, এক্সপ্রস ডেলিভারীতে ৮৬২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারীতে ১২০৭৫ টাকা ফি জমা দিতে হবে।

১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে?

দশ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট করতে পৃষ্ঠা এবং সময়ের উপর টাকার পরিমান নির্ভর করে। ৪৮ এবং ৬৪ পৃষ্ঠায় ও ডেলিভারীর ধরনের উপর ১০ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট ফি নির্ভর করে। বর্তমানে ৪৮ পৃষ্ঠার ১০ বছর মেয়েদের পাসপোর্ট করতে ৫৭৫০ টাকা থেকে শুরু করে ১০ হাজার ৩৫০ টাকা পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। যা ডেলিভারির সময়ের উপর নির্ভর করে এই ফি প্রযোজ্য।

১০ বছর মেয়াদী ৪৮ পৃষ্ঠা পাসপোর্টের ফি কত

৪৮ পৃষ্ঠায় ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্টে রেগুলার ডেলিভারিতে ৫৭৫০ টাকা এক্সপ্রস ডেলিভারীতে ৮০৫০  টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারীতে ১০৩৫০ টাকা ফি দিতে হবে।

passport fee 10 years 48 page
passport fee 10 years 48 page
পাসপোর্ট ধরন ডেলিভারী   পাসপোর্ট
রেগুলার ডেলিভারি ১৫ থেকে ২১ দিন ৫৭৫০ টাকা
এক্সপ্রেস ডেলিভারি ৭ থেকে ১০ দিন ৮০৫০ টাকা
সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারি

২ দিন

১০৩৫০ টাকা

১০ বছর মেয়াদী ৬৪ পৃষ্ঠা পাসপোর্টের ফি কত

passport fee 10 years 64 page
passport fee 10 years 64 page
পাসপোর্ট ধরন ডেলিভারীর সময় টাকা
রেগুলার ডেলিভারি ১৫ থেকে ২১ দিন ৮০৫০ টাকা
এক্সপ্রেস ডেলিভারি ৭ থেকে ১০ দিন ১০৩৫০ টাকা
সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারি সর্বোচ্চ  ২ দিন ১৩৮০০ টাকা

ই-পাসপোর্ট ফি কত

অনলাইনে ই-পাসপোর্ট ফি কত সেটি কনফিউশন থাকলে নিচের টেবিল থেকে সঠিক ফি দেখে নিন। আপনাদের বুঝার সার্থে ছক আকারে তুলে ধরেছি।

পাসপোর্ট টাইম পৃষ্ঠা সংখ্যা রেগুলার ডেলিভারী এক্সপ্রেস ডেলিভারী সুপার এক্সপ্রেস

ডেলিভারী

৫ বছর ৪৮ পৃষ্ঠা ৪০২৫ টাকা ৬৩২৫ টাকা ৮৬২৫ টাকা
৫ বছর ৬৪ পৃষ্ঠা ৬৩২৫ টাকা ৮৬২৫ টাকা ১২০৭৫ টাকা
১০ বছর ৪৮ পৃষ্ঠা ৫৭৫০ টাকা ৮০৫০ টাকা ১০৩৫০ টাকা
১০ বছর ৬৪ পৃষ্ঠা ৮০৫০ টাকা ১০৩৫০ টাকা ১৩৮০০ টাকা

বিদেশ থেকে বাংলাদেশী পাসপোর্ট করতে ফি কত 

চাইলেই বিদেশ থেকে বাংলাদেশী পাসপোর্ট করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে বাংলাদেশী নাগরিক হতে হবে। বাংলাদেশ এম্বাসিতে বিদেশী পাসপোর্ট সমপর্কে জানাতে হবে। সেখান থেকে অনুমতি সাপেক্ষে পাসপোর্ট করতে পারবেন। 

কিন্তু বাংলাদেশ থেকে এবং বিদেশ থেকে পাসপোর্ট কোস্ট সমান নয়। বিদেশ থেকে বাংলাদেশী পাসপোর্ট করতে যে ফি দিতে হবে তা হল ৪৮ পৃষ্ঠার ৫ বছরে রেগুলার ডেলিভারিতে ১০০ ডলার এবং এক্সপ্রেস ডেলিভারী তে ১৫০ ডলার।

আর  ৬৪ পৃষ্ঠার ৫ বছরে রেগুলার ডেলিভারিতে ১৫০ ডলার এবং এক্সপ্রেস ডেলিভারী তে ২০০ ডলার। এ সব কিছু পরিষ্কার করতে নিচে একটি ছবি যুক্ত করা হল সেখান থেকে দেখে নিন।

বিদেশ থেকে বাংলাদেশী পাসপোর্ট ফি
বিদেশ থেকে বাংলাদেশী পাসপোর্ট ফি

শেষ কথা

উপরে আমরা পাসপোর্ট ফি কত টাকা বাংলাদেশের জন্য তা আলোচনা করেছি। যদি আমাদের আর্টকেলটি এ টু জেট পড়ে থাকেন তাহলে ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি এবং 10 বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে সেটি জানতে পেরেছেন। পৃষ্ঠাভেদে পাসপোর্টের ফি কম বা বেশী হয়ে থাকে। আবার পাসপোর্টের ডেলিভারীর উপর নির্ভর করে ফি কম বা বেশী হয়ে থাকে। 

পাসপোর্ট তিন টি মাধ্যমে আমাদের হাতে পাই। সুপার এক্সপ্রস ডেলিভালী হলে ২ দিন এক্সপ্রেস ডেলিভারী হলে ৭ থেকে ১০ দিন এবং নরমাল ডেলিভারী হলে ১৫ থেকে ২১ দিন।  যত দ্রত পাসপোর্টের জন্য আবেদন করব তত টাকার হার বেশি হবে। পাসপোর্ট সংক্রান্ত যে কোন প্রশ্ন আমাদের কমেন্ট জানাতে পারেন। পাসপোর্টের নিত্য নতুন আপডেট পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

আরো জানুনঃ

পাসপোর্ট ফি সংক্রান্ত কিছু প্রশ্ন

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট ২০২৪ ফি কত?

১০ বছর মেয়াদি ৪৮ পৃষ্টার ই-পাসপোর্ট ২০২৪ ফি হচ্ছে রেগুলার ডেলিভারের জন্য ৫৭৫০ টাকা এবং এক্সপ্রেস ডেলিভারীর জন্য ৮০৫০ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস জন্য ১০৩৫০ টাকা

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্টের সর্বচ্চো ফি কত?

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্টের ৪৮ পৃষ্ঠার জন্য সর্বোচ্চ ফি ১০৩৫০ টাকা। ৬৪ পৃষ্টার পাসপোর্ট জন্য সর্বোচ্চ খরচ ১৩৮০০। 

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট পেতে কত দিন সময় লাগবে?

পাসপোর্টের আবেদনের সময়  ডেলিভারীর সময় যা দিয়েছিলেন সেই সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট পাবেন। তিন ক্যাটাগরির টাইম উল্লেখ থাকে একটি হচ্ছে ১৫ থেকে ২১ দিন আরেক টি হচ্ছে ৭ থেকে ১০ দিন সর্বশেষ হল ২ দিন। 

ব্যংক ড্রাফ্ট করতে অতিরিক্ত ফি দিতে হয়?

না, কোন ব্যাংকের মাধ্যমে ফি পরিশোধ করলে অতিরিক্ত চার্জ দিতে হয় না।

ঘরে বসে ই পাসপোর্ট ফি দেয়া যায়?

হ্যা, ঘরে বসেই ই পাসপোর্টের ফি পরিশোধ করা যায়। এ ক্ষেত্রে আপনি e-wallet করতে পারেন এভাবে পেমেন্ট করলে ১৫ টাকা চার্জ করা হয়। তাছাড়াও বিকাস, রকেট, নগদ দিয়ে সহজেই পেমেন্ট করা যায়। 

কোন কোণ ব্যাংকে পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়া যায় ?

আগে শুধু  সোনালী ব্যাংকে পাসপোর্টের টাকা দেওয়া যেত। কিন্তু এখন আরে পাচ টি ব্যাংকে টাকা ড্রাফ করা যায় সেগুলো হল ঢাকা ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, প্রিমিয়ার ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক ও ট্রাস্ট ব্যাংক। এ সব ব্যাংকের যে কোন শাখায় টাকা জমা দেওয়া যাবে।

Comments are closed.