ক্রোয়েশিয়া ভিসার দাম কত ২০২৪

ইউরোপ মহাদেশের ছোট একটি রাষ্ট্র ক্রোয়েশিয়া যার সরকারি নাম প্রজাতন্ত্রী ক্রোয়েশিয়া। ইউরোপ মহাদেশের এই দেশটিতে অনেক কাজের ব্যবস্থা থাকলেও কোন দেশ থেকে তেমন শ্রমিক এই দেশে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করতেন না। তবে ২০১৮ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ খেলার মাধ্যমে দেশটি সকলের নজরে আসার পর অনেকেই ক্রোয়েশিয়া যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করছে।

বর্তমানে মানুষের এই আগ্রহ বা ক্রোয়েশিয়া যাওয়ার চাহিদা ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। ক্রোয়েশিয়াতে বর্তমানে কোম্পানি, কনস্ট্রাকশন ও রেস্টুরেন্ট সহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠানে কাজের সুযোগ রয়েছে। যার কারণে অনেকেই ক্রোয়েশিয়া ভিসার দাম জেনে ভিসার জন্য আবেদন করার পরিকল্পনা করছে। নিচে ভিসার দাম সম্পর্কে বিস্তারিত দেওয়া হয়েছে।

ক্রোয়েশিয়া ভিসার দাম

বর্তমানে বাংলাদেশে বেকারত্বের হার অনেক পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশের এই সকল বেকারদের মধ্যে প্রায় অধিকাংশ লোক শিক্ষিত। ক্রোয়েশিয়া যাওয়ার জন্য সবার আগে ভিসার জন্য আবেদন করতে হয়। শিক্ষিত হয়েও বেকার থাকায় এই বেকারত্বের বোঝা মাথা থেকে নামানোর জন্য অনেকই ক্রোয়েশিয়া ভিসার জন্য আবেদন করছে।

ক্রোয়েশিয়ার ভিসার মেয়াদ বৈধভাবে সর্বনিম্ন ৬ মাসের মত হয়ে থাকে। এই ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে পুনরায় ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। বর্তমানে ক্রোয়েশিয়া ভিসার দাম বা বেসরকারিভাবে ক্রোয়েশিয়া যেতে আনুমানিক ৭-৮ লাখ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। তবে সরকারিভাবে ৫-৬ লাখ টাকায় ক্রোয়েশিয়ায় যাওয়া যায়।

ক্রোয়েশিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসার দাম

আপনি যদি কাজ করার জন্য ক্রোয়েশিয়া যেতে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে ক্রোয়েশিয়ার ওয়ার্ক পারমিট ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। ক্রোয়েশিয়ায় অসংখ্য প্রতিষ্ঠানে কাজের সুযোগ রয়েছে। বর্তমানে কাজ করতে যাওয়ার জন্য ক্রোয়েশিয়ার ওয়ার্ক পারমিট ভিসা প্রস্তুত করতে সর্বনিম্ন ৬ থেকে ৭ লাখ টাকা খরচ হতে পারে।

ক্রোয়েশিয়া শ্রমিক ভিসার দাম

সকলেই চায় দক্ষ এবং অভিজ্ঞ শ্রমিক দ্বারা তাদের কাজ করাতে। কেননা একমাত্র দক্ষ এবং অভিজ্ঞ শ্রমিকরাই সকল কাজ পরিপূর্ণভাবে করার ক্ষমতা রাখে। আপনার যদি শ্রমিক হিসেবে কোন কাজের পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে খুব সহজেই আপনি শ্রমিক হিসাবে ক্রোয়েশিয়া গিয়ে কাজ করতে পারেন। ক্রোয়েশিয়া শ্রমিক ভিসা পেতে আনুমানিক ৫-৬ লাখ টাকা লাগতে পারে।

ক্রোয়েশিয়া কৃষি ভিসার দাম ২০২৪

বাংলাদেশ কৃষি প্রদান দেশ হওয়ায় এ দেশের অসংখ্য মানুষ কৃষিকাজে অভিজ্ঞ হয়ে থাকে। বর্তমান বাংলাদেশে কৃষি কাজকে নিম্ন চোখে দেখায় অনেকেই হতাশায় ভোগে থাকেন। আপনাদের এই হতাশা দূর করতে ক্রোয়েশিয়া কৃষি ভিসা অনেকাংশে সাহায্য করবে। কৃষি ভিসায় ক্রোয়েশিয়া যেতে বর্তমানে সাড়ে ৪ লাখ টাকা থেকে সাড়ে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত খরচ হয়ে থাকে।

ক্রোয়েশিয়া রেস্টুরেন্ট ভিসার দাম

আমরা সকলেই কমবেশি ছোট বড় রেস্টুরেন্টের সাথে পরিচিত রয়েছি। ক্রোয়েশিয়াতে অসংখ্য ছোট বড় রেস্টুরেন্ট রয়েছে। আপনার যদি রেস্টুরেন্টে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে থাকে তাহলে ক্রোয়েশিয়ায় রেস্টুরেন্টে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। বর্তমানে রেস্টুরেন্ট ভিসায় ক্রোয়েশিয়া যেতে আনুমানিক ৪-৫ লাখ টাকা লাগে।

ক্রোয়েশিয়া ভিসার খরচ কত?

ক্রোয়েশিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে অনেক বেশি পরিমাণে ভিসার আবেদন করায় ভিসা পেতে আগের তুলনায় অনেক বেশি টাকা খরচ করতে হচ্ছে। বর্তমানে ভিসার জন্য আবেদন করতে আনুমানিক ৮০ ইউরো আবেদন ফি জমা দিতে হচ্ছে। যা বাংলাদেশী টাকায় পরিবর্তন করলে ১০০০০ টাকার কাছাকাছি হয়ে থাকে।

ক্রোয়েশিয়া ভিসা পেতে কতদিন সময় লাগে

ক্রোয়েশিয়া দূতাবাসে ভিসা আবেদন ফরম জমা দেওয়ার পর ক্রোয়েশিয়া ভিসা প্রক্রিয়াকরণের কাজ শুরু হয়ে যায়। আবেদন ফরম জমা দেওয়ার আনুমানিক ১৫ দিনের মধ্যে ভিসার প্রক্রিয়াকরণের কাজ শেষ হয়ে যায়। তবে অনেক সময় বিভিন্ন কারণে এই ভিসা প্রক্রিয়াকরণে ৩০ দিন পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

শেষ কথা

বাংলাদেশের অসংখ্য অসাধু দালালেরা এক ধরনের ভিসার কথা বলে অন্য ধরনের ভিসা তৈরি করে দিয়ে অধিক পরিমাণে অর্থ হাতিয়ে নেয়। তাদের এই ক্ষতির হাত থেকে সতর্ক করার জন্য আজকের এই পোস্টে ক্রোয়েশিয়া ভিসার দাম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

Md Tuhin
Md Tuhin